Home » ঈদ সংখ্যা ২০২২ » এ আমার অঙ্গিকার-রবিউল হাসনাত সজল

এ আমার অঙ্গিকার-রবিউল হাসনাত সজল

Spread the love

অনেক শীত বসন্ত পেরিয়ে নিজেকে আবিষ্কার করেছি আজ 

যেখানে আমার আমিটা

একান্তই আমার,

যেখানে আমার চারপাশের আমি গুলোর কাছে

কেবলি তাদের প্রয়োজনেই আমিটা আমি হয়ে উঠি

অথচ, অন্ধকার মাখা

রাত-দিনের বিশ্লেষণে

আমার আমি তে কেবলি

আমিই থেকে গ্যাছি বার বার

অথচ কি চমৎকার ভাবে

আমাকে সবাই ব্যবহার করছে-

ঘরের আসবাব পত্র-

খাট,বালিশ, বিছানার মতো,

বাটি-ঘটি,গ্লাস-প্লেটের মতো,

কখনো কাগজ-কলম, বই-খাতার মতো,

কখনো খাবার দাবার

ঔষধ পত্রের মতো নিয়ম করে

 যখন যার যেভাবে প্রয়োজন হয়েছে- সেভাবেই,

হায়রে জীবন!

এটা কে কোন জীবন বলে কিনা জানি না,

হয়ত এটাও জীবনের-

কোন না কোন নিয়মের সাথে মিলে যাবে এক দিন, না এক দিন

নইলে এমন হবে কেনো?

হয়তো এভাবে আমার আমিকে

আমার চারপাশের একান্ত

আমি গুলোর প্রয়োজনে ব্যবহার হওয়াটায় আমার জন্য

আমি কোন নিয়ম না হয়

ভুল সময়ে জন্মানোর খেসারত,

না হলে এমন হবে কেনো??

অন্তত এই গুড়ি গুড়ি বর্ষামাখা শীতে তো তাই মনে হচ্ছে,

তাই আজ থেকে-

এই মুহূর্ত থেকে

আমার আমিকে

আমার মতো করে বাঁচতে

শিখিয়ে নিলাম,

আমার মতো করেই হাসতে

কাঁদতে শিখিয়ে নিলাম,

আজ থেকে আর কোন

আমার একান্ত আমি গুলোকে

আর মুখোমুখি দাঁড় করাতে

চাই না কোন

আদিমতার আড়ম্বনতায়,

এখন দুচোখ আমার

মাছ রাঙা মনেই

দেখবে পৃথিবী-

দেখবে অষ্টদশী থেকে

ত্রিশ উত্তর সব সূর্যমুখি আর

প্রিয় কবি কাজী নূরের

নতুন একটা বন্ধুর মতো

সেই অচেনা বন্ধুকে

অনায়াসে চিনে নেবো প্রতিদিন,

উড়তে থাকবো মেঘের মতো

আকাশ থেকে আকাশে

যে আকাশে রঙের মেলা বসে,

মেলার সে রঙে

নিজেকে রঙিন করতে করতে

আমার আমিকে হারিয়ে ফেলবো-কৃষক-মুজুর,

কুলি আর জেলে ও কুমোরে মুখের হাসিতে,

মাঠের পরে মাঠ

দু’পায়ে মাড়িয়ে নেবো

রাখালের সেই খালি পায়ে,

শুধু আমার সেই একান্ত আমি গুলোর কাছে

আর কখনো

আমার আমিকে রক্তাক্ত হতে দেবো না,

ব্যবহৃত হতে দেবো না

তাদের মতো করে শুধু তাদের

প্রয়োজনের মাপ কাঠি হতে,

বিস্তীর্ণ জীবনের দিনান্তে

এ আমার অঙ্গিকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*