Home » 2019 » April

Monthly Archives: April 2019

অপারেশন সফল : অসুস্থ্য পিতার পাশে দাঁড়াতে মেয়ের আবেদন

নূরজাহান আরা নীতি :  তরুন কবি শিরিন সুলতানার পিতা মোহাম্মদ আয়ুব হোসেনের অপারেশন সফল হয়েছে। আজ সোমবার ২৯ এপ্রিল তার জ্ঞান ফিরেছে। আইসিইউতে তার ছেলে ফয়সালের কথা বলেছেন।

সবার ভালবাসা  এবং দোয়ায় অপারেশন সফল হওয়ায় শিরিন সুলতানার তিনি সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

জানা গেছে, মোহাম্মদ আয়ুব হোসেনে ২০১৭ সালের দিকে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হয়। নাক, কান,গলার ডাক্তার দেখে বাইপসি করতে হবে বলে জানায়। তারপর তিনি ঢাকাতে বাইপসি না করে ভারতে চলে আসে । ৭ সেপ্টেম্বর প্রথম বাইপসির মাধ্যমে ভারতের পিয়ারলেস হসপিটালে জানতে পারেন তার ভোকালকড ক্যান্সার । দ্রুত টিট্রমেন্টের জন্য কলকাতার ঠাকুরপুকুর হসপিটালে ভর্তি করিয়ে ৩২টা রেডিও থেরাপি দেওয়া হয় এবং একবছর আট মাস সেখানেই চিকিৎসারত ছিলেন। একবছর আট মাসে তার সাড়ে ১৮ লক্ষ টাকা খরচ হয়। বর্তমান তার অবস্থা আশংকা জনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারতের ভেলোরের সিএমসি হসপিটালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসারত আছেন। ডাক্তার জানিয়েছেন তার হলকুমসহ শ্বাসনালী কেটে বাদ দিতে হবে তাতে সর্বসাকুল্যে খরচ হবে আরো ৬ লক্ষ টাকা এতো টাকা। এট টাকা আমাদের পরিবারের পক্ষে জোগান দেওয়ার সমার্থ নাই। তাই আমার বাবাকে  বাঁচানোর জন্য দেশ বিদেশের বিত্তবানদের সাহায্য পার্থনা করেছেন তাঁর মেয়ে শিরিন সুলতানা।

সহযোগিতা পাঠানোর জন্য  বিকাশ নং 01731140088 এবং ফয়সাল আহমেদ রানা। কৃষিব্যাংক একাউন্ট নম্বর 2540 খেদাপাড়া ব্রাঞ্চ,মনিরামপুর। মাসুদ জামান, ডাচবাংলা 7017512286408  প্রভৃতি আর্থিক প্রততিষ্ঠান সমুহের সাথে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে। অসুস্থ্য পিতার পাশে দাঁড়াতে মেয়ের আবেদন

শিরিন সুলতানা,বাবা মোহাম্মদ আয়ুব হোসেন, গ্রাম শৈলী, ডাকঘর খেদাপাড়া, মনিরামপুর জেলা যশোর। পরিবারের সাথে মোবাইল যোগাযোগ 01731140088, 01737754163।

এদিকে কবি শিরিন সুলতানার পিতার আশু রোগমুক্তি কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কবি পদ্মনাভ অধিকারী।

অনুরূপ বিবৃতি দিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক মো. সামসুজ্জামান, সহসভাপতি কাজী রকিবুল ইসলাম, আমির হোসেন মিলন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মুন্না, সহ-সাধারণ সম্পাদক নূরজাহান আরা নীতি, সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল হাসনাত সজল, প্রকাশনা সম্পাদক  আহমদ রাজু, কোষাধ্যক্ষ আবুল হাসান তুহিন, অফিস সম্পাদক শরিফুল আলম, নির্াহী সদস্য আহমেদ মাহাবুব ফারুক, অ্যাডভোকেট মাহমুদা খানম, নাসির উদ্দিন, সোনিয়া সুলতানা চাঁপা।

বিএসপি সাহিত্য চর্চার জন্য কাজ করছে : জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল

মুস্তাফিজুর রহমান : যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেছেন, দিন দিন মানুষের মনুষত্ব নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। সমাজের সামাজিকতা কমে যাচ্ছে। মানুষের প্রতি মানুষের মমতা, ভালোবাসা দায়িত্ববোধ হারিয়ে যাচ্ছে।  এর থেকে উত্তোরণ ঘটাতে হলে সংস্কৃতি ও চেতনাবোধকে সমৃদ্ধি করতে হবে। যার জন্য আমাদের সকলকে বই পড়তে হবে। বই পড়া ও সংস্কৃতি চর্চা, সাহিত্য চর্চার জন্য সাহিত্য সংগঠন ব্যাপক দায়িত্ব পালন করে। যশোরের বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদও সে দায়িত¦ পালন করে চলেছে।

আজ ১৩ এপ্রিল শনিবার বিকেলে বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদের বর্ষবিদায় ও বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক মো. সামসুজ্জামানের সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, প্রেসক্লাব যশোরের সম্পাদক আহসান কবীর, যশোর জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার হায়দার আলী, বিশিষ্ট কবি ও গবেষক ড. মুস্তাফিজুর রহমান, কলামিষ্ট আমিরুল ইসলাম রন্টু, বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক, ড. শাহনাজ পারভীন, সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরের সভাপতি শহিদ জয়।

বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মুন্নার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি পদ্মনাভ অধিকারী, কাজী রকিবুল ইসলাম, নূরজাহান আরা নীতি, আহমদ রাজু, এসএম শরিফুল আলম, আবুল হাসান তুহিন, আহমেদ মাহাবুব ফারুক, অ্যাডভোকেট মাহমুদা খানম, নাসির উদ্দিন, সোনিয়া সুলতানা চাঁপা।

অনুষ্ঠানে কবিতা পাঠ ও আলোচনায় অংশ নেন, সাধন কুমার অধিকারী, প্রফেসর (অব:) মনিরুজ্জামান,  ড.মনিরুজ্জামান,  আব্দুল আলীম, শেখ হামিদুল হক, অ্যাড. জিএম আবু মুছা, শাহরিয়ার সোহেল, জগদীশ দাশ, হাতেম আলী সরদার,  আরশি গাইন, রেজাউল করিম রোমেল, গোবিন্দ্র চন্দ্র বিশ^াস, শংকর নিভানন, কমলেশ চক্রবর্তী, সুমন বিশ্বাস, নাঈম নাজমুল, কাজী হাবিবা খাতুন, রাশিদা আক্তার লিলি, নার্গিস আক্তার, মেহেদি হাসান সবুজ, ডা. অরুপ কুমার বিশ্বাস, মাস্টার লুৎফর, গোলাম রসুল, উত্তম কুমার, রমজানআলী, শ্যামল কান্তি সরকার, বৈদ্যনাথ মন্ডল, রুুহুল আমিন, শরীফ উদ্দিন, ইলিয়াস শাহ, জিহাদ হোসেন হৃদয়, মুুস্তাফিজুর রহমান, হোসেন আলী, এএফএম মোমিন যশোরী, নজরুল ইসলাম, অধ্যাপক মো. জাহাঙ্গীর, সানজিদা খাতুন, লায়লা বেগম, মোস্তানূর রহমান সাক্ষর, হাসিনুর রহমান অক্ষর প্রমুখ।

কবিতা পাঠ ও আলোচনা সভা শেষে শহরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়।

 

বিএসপির সাহিত্য সভা ও প্রেসক্লাবের  নব-নির্বাচিতদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

মুস্তাফিজুর রহমান  : বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদ (বিএসপি) ১৮৯তম মাসিক সাহিত্য সভা ও প্রেসক্লাব যশোরের নবনির্বাচিতদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আজ ৫ এপ্রিল শুক্রবার সকাল ১০টায় প্রেসক্লাব যশোরে অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক মো. সামসুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রেসক্লাব যশোরের নব-নির্বাচিতদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. মো. মুস্তাফিজুর রহমান, কবি ও কলামিস্ট  আমিরুল ইসলাম রন্টু, কবি আনোয়ারুল ইসলাম, ড. শাহনাজ পারভীন, কবি আব্দুল খালেক, ড. মনিরুজ্জামান।

 

এসময় উপস্থিত প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, সম্পাদক আহসান কবীর, যুগ্ম সম্পাদক জাহিদুল কবির মিল্টন, সরোয়ার হোসেন, কোষাধ্যÿ আশরাফুল আজাদ. দপ্তর সম্পাদক তৌহিদ জামান, সাংস্কৃতিক ও সমাজসেবা সম্পাদক তহীদ মনি, নির্বাহী সদস্য এম আইউবকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

সংবর্ধিতদের মধ্যে অনুভূতি ব্যক্ত করেন প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন ও সম্পাদক আহসান কবীর।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মুন্না‘র পরিচালনায় কবিতা পাঠ ও আলোচনায় অংশ নেন  কবি পদ্মনাভ অধিকারী, কাজী রকিবুল ইসলাম, রবিউল হাসনাত সজল, আহমদ রাজু, আবুল হাসান তুহিন, শরিফুল আলম, অ্যাডভোকেট মাহমুদা খানম, নাসির উদ্দিন, সোনিয়া সুলতানা চাঁপা. অ্যাডভোকেট শেখ তাজ হোসেন তাজু, সাধন কুমার অধিকারী, আব্দল আলীম, শাহরিয়ার সোহেল, রাশিদা আখতার লিলি, আরশী গাইন,

কুতুব উদ্দিন বিশ্বাস, শংকর নিভানন, সুমন বিশ্বাস, মুহাম্মদ হাতেম আলী সরদার, কমলেশ চক্রবর্তী, শেখ হামিদুল হক, অধ্যাপক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, মোছা. নার্গিস আক্তার, লায়লা বেগম, ডা. বদরুন্নাহার খান, রহমান মুজিব, হুমায়ন কবীর, নজরুল ইসলাম, গোলাম রসূল, সালমা খাতুন, রেজাউল করিম রোমেল, মোহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান, চয়ন বাবু কর, জিহাদ হাসান হৃদয়,  শ্রাবণী আক্তার উর্মি, কেয়া পারভীন, সুমি বেগম, আলীফ হাসান জীম, ফিলিফ বাবলু বিশ্বাস, সানজিদা ফেরদৌস, উত্তম কুমার।

যশোর টাউন হল ময়দানে অনুষ্ঠিত একুশের বইমেলায় বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদের স্টলে বই দিয়ে সহযোগিতা করায় ২১জন কবিকে সনদপত্র দেয়া হয়।